অর্থনতিক উন্নয়নে যোগাযোগ ব্যবস্থা

বাংলাদেশে যােগাযােগ ব্যবস্থার কাঠামাের ওপর ভিত্তি করে যােগাযােগ ব্যবস্থা গড়ে ওঠে । ভূ – প্রাকৃতিক অবস্থার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে যােগাযােগ ব্যবস্থা গড়ে তােলা হয় । ভূ – প্রাকৃতিক বাস্তবতার ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশে রেলপথ , সড়ক পথ , নৌপথ ও বিমান পথ এই চার ধরনের যােগাযােগ ব্যবস্থা গড়ে ওঠেছে । রেলপথ বাংলাদেশের সামগ্রিক যােগাযােগ ব্যবস্থার মধ্যে রেলপথের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে । দেশের রাজধানী , বিভিন্ন বন্দর ও বড় শহরের সঙ্গে পারস্পরিক যােগাযােগের জন্য রেলপথের গুরুত্ব অপরিসীম । রেলভ্রমণ বেশ আনন্দদায়ক । নদীমাতৃক দেশ হওয়ায় বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় রেল যােগাযােগ স্থাপন করা সম্ভব হয়নি । তাছাড়া বাংলাদেশের আয়তন ও জনসংখ্যার তুলনায় রেলপথ যথেষ্ট নয় । দেশে বর্তমানে প্রায় ৪৫০০ কিলােমিটার রেলপথ রয়েছে ।

অর্থনতিক উন্নয়নে যোগাযোগ ব্যবস্থা

সড়ক পথ

বর্তমানে বাংলাদেশের যােগাযােগ ব্যবস্থায় সড়ক পথ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে আছে । এদেশ গ্রামপ্রধান । এবং দেশের অধিকাংশ মানুষ গ্রামে বসবাস করে । শহরের সঙ্গে গ্রামের ঘনিষ্ঠ যােগাযােগের ফলে জাতীয় উন্নতির সুযোেগ ঘটে বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় সড়কপথে যােগাযােগ ব্যবস্থা রয়েছে । কিন্তু বাংলাদেশের সড়ক যােগাযােগ যথার্থ উন্নত নয় । দেশে বর্তমানে প্রায় দুই লক্ষ সত্তর হাজার কিলােমিটার সড়ক পথ রয়েছে । তার মধ্যে পাকা সড়কের পরিমাণ ২১,৫৮৯.৬৫ কিলােমিটার । সড়ক পথে বাস , ট্রাক , সি.এন.জি , মােটর গাড়ি , মিনিবাস , স্কুলভ্যান , কলেজ বাস , টেম্পু , লরি , ট্যাংক ইত্যাদি যানবাহন যাতায়াত করে । সাম্প্রতিককালে সড়ক যােগাযােগের ক্ষেত্রে বেশ অগ্রগতি সাধিত হলেও পূর্ণাঙ্গ সড়ক যােগাযােগ ব্যবস্থা এখনাে গড়ে তােলা সম্ভব হয়নি । জনসংখ্যা বৃদ্ধিজনিত সমস্যার কারণে দেশের রেলপথ ও সড়ক পথে প্রবল চাপ পড়ছে । এর জন্য সরকারের গৃহীত উদ্যোগ পর্যাপ্ত বলে প্রতীয়মান হচ্ছে না । 1

নৌ – পথ

বাংলাদেশে নৌপথের গুরুত্ব খুব বেশি । কেননা বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ । দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে আছে ছােট বড় প্রায় ৭০০ টি নদী । দেশের নৌপথের মােট দৈর্ঘ্য প্রায় ৮৪০০ কিলােমিটার । বাংলাদেশে সারা বছর মােট নাব্য নৌপথের দৈর্ঘ্য হলাে ৫২০০ কিলােমিটার । নৌপথে স্টিমার , লঞ্চ , কার্গো , ইঞ্জিন চালিত নৌকা , সাধারণ নৌকা ইত্যাদি চলাচল করে । দেশে যাত্রী ও পণ্যসামগ্রী বহনে নৌপথের বিশেষ অবদান রয়েছে । বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক নৌ – যােগাযােগ ব্যবস্থা রয়েছে । নদী পথে বহির্বিশ্বের সাথে নৌ – পরিবহনে পণ্য আদান – প্রদান করা হয় । চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর ও মংলা সমুদ্র বন্দর অন্যতম নৌ – যােগাযােগ মাধ্যম । তাছাড়া প্রস্তাবিত পায়রা সমুদ্র বন্দর আন্তর্জাতিক নৌ – যােগাযােগের অপেক্ষায় রয়েছে । দেশের সব যাত্রী ও পণ্যসামগ্রীর প্রায় পঁচাত্তর ভাগ নৌপথে পরিবাহিত হয় । মাননীয় নৌ – পরিবহনমন্ত্রীর দেয়া সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী নৌপথের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি করতে সরকার ইতোমধ্যে ৫৩ টি নদী খনন কাজের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং এর অংশ হিসেবে মংলা – ঘষিয়াখালী নৌপথসহ বেশ কয়েকটি নদীতে ড্রেজিং কাজ অব্যাহত আছে । তিনি আরও জানাল যে , বিআইডব্লিউটিএ গত ৫ বছরে ৩১০ কিলােমিটার নৌ – ফেরিপথ ড্রেজিং করেছে । এর ফলে নৌপথের দৈর্ঘ্য ৬২৮ কিলােমিটার বেড়েছে । দেশের উত্তরাঞ্চলে ফারাক্কা বাঁধের প্রতিক্রিয়ায় নৌপথের উপযােগিতা কমে এলেও দেশের দক্ষিণাঞ্চলে নৌচলাচলের ব্যাপকতা বিদ্যমান এবং এর ওপর জনগণের নির্ভরশীলতাও অপরিসীম ।

বিমান পথ

দূর – দূরান্তে অতি দ্রুত যাতায়াত ও পণ্যসামগ্রী পরিবহনের যথার্থ সুযােগ দান করে বিমান ব্যবস্থা । বাংলাদেশ বিমান দেশের বিমান যােগাযােগ ব্যবস্থার দায়িত্বে নিয়ােজিত । বাংলাদেশ বিমান সংস্থার নাম “ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেড । বাংলাদেশের প্রধান আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের নাম “ হজরত শাহজালাল ( র . ) আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর ” । বাংলাদেশ বিমান যেমন আন্তর্জাতিক পথে যােগাযােগ সাধন করছে , তেমনি অনেক বিদেশি বিমান সংস্থাও বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচলের মাধ্যমে যােগাযােগ রক্ষা করছে । বাংলাদেশ বিমান ক্রমান্বয়েই তার বিমান বহরের পরিধি বাড়াচ্ছে এবং দেশে – বিদেশে যােগাযােগের ক্ষেত্রে উত্তরোত্তর নিজ গুরুত্ব বৃদ্ধি করে চলছে ।

দেশের অর্থনীতিতে যােগাযােগ ব্যবস্থার গুরুত্ব

দেশের বিভিন্ন ধরনের যােগাযােগ ব্যবস্থা যাত্রী বহন ও পণ্যসামগ্রী স্থানান্তরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের মাধ্যমে অর্থনৈতিক অগ্রগতি সাধন করছে । বাংলাদেশের সড়ক যােগাযােগ ব্যবস্থার মাধ্যমে কৃষিনির্ভর ও গ্রামভিত্তিক এদেশের কৃষিপণ্য , শিল্পের কাঁচামাল ও উৎপাদিত পণ্য দ্রুত স্থানান্তরসহ গ্রাম ও শহরের মধ্যে যােগাযােগের উপায় সহজ হয়েছে । কৃষি উন্নয়ন , শিল্প উন্নয়ন , কৃষি ও শিল্পজাত পণ্য বাজারজাতকরণ , গ্রাম অঞ্চল থেকে মূল্যবান সম্পদ আহরণ , যাতায়াত , বনজ সম্পদ সংগ্রহ ইত্যাদি ক্ষেত্রে সড়ক যােগাযােগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে । যােগাযােগ ব্যবস্থার সঙ্গে বিপুল সংখ্যক মানুষের জীবিকার প্রশ্ন জড়িত । পল্লিবাংলার উন্নয়নই দেশের উন্নয়ন এবং তার জন্য উন্নত সড়ক যােগাযােগের বিশেষ অবদান রয়েছে ।

বাংলাদেশ সড়ক যােগাযোেগ সংস্থা এবং অসংখ্য বেসরকারি উদ্যোগ দেশের যােগাযােগ ব্যবস্থার সঙ্গে সম্পর্কিত । সাম্প্রতিককালে যােগাযােগ ব্যবস্থা ক্রমাগত সম্প্রসারিত হচ্ছে এবং যাত্রীসাধারণ ও মালপত্র পরিবহনের সুযােগ – সুবিধা বৃদ্ধি পাচ্ছে । যাতায়াত ও যােগাযােগের সুবিধা , স্বল্পব্যয়ে যােগাযােগ , উপকূলীয় অঞ্চলে যােগাযােগ , দুর্যোগ মােকাবিলা , বৈদেশিক বাণিজ্য , রাজস্ব আয় ইত্যাদি ক্ষেত্রে নৌ – যােগাযােগ ব্যবস্থা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । তবে নৌ – যােগাযােগের ক্ষেত্রে নানাবিধ সমস্যা । বিরাজমান থাকায় এর সম্ভাবনাকে সম্পূর্ণ কাজে লাগানাে যাচ্ছে না । এক্ষেত্রে অধিকতর সুযােগ – সুবিধা বৃদ্ধির ব্যাপারে তৎপর হওয়া বাঞ্ছনীয় । নদীপথ ভরাট হয়ে যাওয়ার ফলে দেশে নৌ চলাচল বাধা – বিঘ্নের সম্মুখীন হচ্ছে ।

Leave a Reply