জনমত গঠন বেতার ও টেলিভিশনের ভূামিকা

জনমত আধুনিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের মূলভিত্তি । এর মাধ্যমে একটি দেশের সকল জনগণ নিজেদের সুনির্দিষ্ট মতামত পেশ করতে পারে । আর জনমতের ওপর ভিত্তি করে সরকার বিভিন্ন কার্যাবলি ও আইন – কানুন নির্ধারণ করতে পারে । বিভিন্ন দেশে জনমত গঠনের বহুল প্রচলিত ক্রিয়াশীল মাধ্যম হলাে বেতার ও টেলিভিশন । আধুনিক বিশ্বে জনমত গঠনের বিভিন্ন ক্রিয়াশীল মাধ্যম বিদ্যমান । এসব মাধ্যমে অতি সহজে জনমত গঠন করা যায় । এর মধ্যে কিছু মাধ্যম আছে দৃশ্যমান , আর কিছু মাধ্যম আছে অদৃশ্যমান কিন্তু ইন্দ্রিয়গ্রাহ্য । রেডিও , টেলিভিশন , সংবাদপত্র , সভা – সমিতি , সেমিনার , প্রচারাভিযান প্রভৃতি দৃশ্যমান মাধ্যম । এ দৃশ্যমান মাধ্যমগুলােই জনমত গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ।

বেতার ও টেলিভিশনের ভূামিকা

জনমত গঠনে বেতারের ভূমিকা

জনমত গঠনে বেতারের ভূমিকা প্রসঙ্গে বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড . তালুকদার মনিরুজ্জামান বলেছেন ,

” It is really Seductive and significant that radio plays a vital role in the formation of public opinion . ”

যে জনমত গঠনে বেতার আকর্ষণীয় ও তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । জনমত গঠনে বেতার যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তা আমাদের নির্দ্বিধায় স্বীকার করতে হবে । যুগােপযােগী জ্ঞান – বিজ্ঞানের প্রসার , জাতীয় সমস্যার সমাধান , সভ্যতা – সংস্কৃতির বিকাশ ও জনসচেতনতামূলক সংবাদ পরিবেশনে অনন্য ভূমিকা পালন করে বেতার । বেতার একটি সহজলভ্য মাধ্যম । আজকাল মােবাইল ফোনের সাথেও বেতার শােনার সুযােগ রয়েছে । তাই মানুষ যেকোনাে স্থানে , যেকোনাে সময় বেতার শুনতে পারে । এজন্য বেতারে যেকোনাে পরিকল্পিত বিষয় বা যেকোনাে সমস্যার ব্যাপারে জনমত গঠন করতে চাইলে মানুষ অতি সহজেই সাড়া দিতে পারে । জনমত গঠনের ক্ষেত্রে বেতার কয়েকটি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । যেমন—


( ক ) জনগণের অভিমতকে সর্বস্তরে পৌছানাে : কোনাে বিষয়ে জনগণ যখন জনমত গঠন করতে চায় তখন বেতার জনগণের সেই যুগােপযােগী অভিমতকে সমাজের সর্বস্তরে পৌছে দেয় । সমাজের সকল শ্রেণির মানুষ তখন সেই বিষয়ে সচেতন হয়ে নিজেদের অভিমত ব্যক্ত করতে পারে ।

( খ ) জনগণের সিদ্ধান্ত গ্রহণে সহায়ক : দেশের জাতীয় ব্যাপারে যদি কোনাে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তখন সে বিষয়টি জনগণকে অবহিত করে বেতার । এক্ষেত্রে জনগণের যদি কোনাে দ্বিমত থাকে তাহলে তারা সে অনুযায়ী মতামত প্রকাশ করার সুযােগ পায় ।

( গ ) জনগণের মতামতকে ক্রিয়াশীল করে : জনগণ একজোট হয়ে যদি কোনাে ব্যাপারে মতামত প্রকাশ করে , তখন সেই মতামতকে কার্যকর ও ক্রিয়াশীল করার ক্ষেত্রে বেতার ভূমিকা পালন করে ।

জনমত গঠনে টেলিভিশনের ভূমিকা

জনমত গঠনে টেলিভিশনের ভূমিকা আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ । টেলিভিশন আধুনিক প্রযুক্তির বিস্ময়কর আবিষ্কার । এর ফলে সহজেই আমরা কোনাে ব্যক্তির ছবিসহ তার কথা শুনতে পারি । তাই জনমত গঠনে টেলিভিশন , বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে । শহর – গ্রাম সর্বত্রই এমনকি সবার ঘরে ঘরে এখন টেলিভিশন রয়েছে । সবাই টেলিভিশন দেখেও । তাই কোনাে বিষয়ে জনমত গঠন করতে চাইলে টেলিভিশনে প্রচারণা চালানাে হলে তা সহজেই জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করে । কারণ টেলিভিশনের প্রচারণা কৌশল অত্যন্ত আকর্ষণীয় । প্রচারণাটি জনগণের বােধগম্য করে তোেলার জন্য তারা সুস্পষ্টভাবে উপস্থাপন ৪ করে । ফলে জনগণ তা দেখে সে বিষয়ে বিচার – বিশ্লেষণ করে নিজেদের মতামত উপস্থাপন করতে পারে । টেলিভিশন জনমত গঠনে নিম্নোক্ত কয়েকটি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ।


জনগণের বিভ্রান্তি দূরীকরণ

( ক ) যে বিষয়ে জনমত গঠন করা হবে সে বিষয়টি সম্পর্কে টেলিভিশন স্পষ্ট ধারণা তুলে ধরে । ফলে জনগণের মধ্যে যদি কোনাে বিভ্রান্তি থাকে তা দূর হয়ে যায় ।

( খ ) জনগণের মতামত প্রকাশে উৎসাহিত করা : টেলিভিশন জনগণের সামনে বিভিন্ন বিষয়কে অত্যন্ত সুচারুরূপে তুলে ধরে । জনগণ এসব বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পায় । ফলে তারা মতামত প্রকাশে উৎসাহিত হয় ।

( গ ) জনগণকে সচেতন ও আত্মপ্রত্যয়ী করে তােলে : টেলিভিশনের মাধ্যমে আজকাল সমাজ সচেতনতামূলক বিভিন্ন বিষয় উপস্থাপন করা হয় ।

তাছাড়া সরকারের বিভিন্ন গৃহীত পদক্ষেপ ও কার্যবিধি , বিভিন্ন গৃহীত আইন এসব নানা বিষয় টেলিভিশনে সপ্রচার করা হয় । ফলে জনগণ সমাজ সচেতন ও আত্মপ্রত্যয়ী হয়ে ওঠে ।

উন্নত দেশগুলােতে জনমত গঠনে বেতার ও টেলিভিশনের ভূমিকা

উন্নত দেশগুলাের দিকে লক্ষ করলে দেখা যায় , জনমত গঠনে তারা কেবল বেতার ও টেলিভিশনকে প্রাধান্য দেয় । কেননা বেতার ও টেলিভিশনের মাধ্যমে যতটা ক্রিয়াশীল জনমত গঠন ব্রা যায় , অন্যকোনাে মাধ্যমে ততটা সম্ভব হয় না । তাছাড়া সর্বাধিক জনগণ এ দুটি মাধ্যমের প্রতি বেশি আগ্রহী । ফলে জনগণের সহজে দৃষ্টিগােচর হওয়ার জন্য এ দুটি মাধ্যমকে বেছে নেওয়া হয় । এর কারণ হিসেবে দেখা যায় , প্রত্যেকটি দেশে শিক্ষিত ও অশিক্ষিত জনগােষ্ঠীর সর্বাধিক লােক এ দুটি মাধ্যমের ওপর নির্ভর করে । তাই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে জনমত গঠনে বেতার ও টেলিভিশনকে প্রাধান্য দেওয়া হয় । ১৯৯৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের প্রচারাভিযানে প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন বেতার ও টেলিভিশনকে জনমত গঠনে প্রাধান্য দিয়েছেন । এর প্রেক্ষিতে তিনি বলেছিলেন , ” It’s a great opportunity given by science that radio and television have enormously contributed us in the formation of public opinion . ”

Leave a Reply